এই পর্বে আমরা প্রথম খণ্ডের তৃতীয় অধ্যায়ের প্রথম পাঠটি শিখব ইনশাআল্লাহ্‌।

পাঠের শুরুতে আমরা এই অংশটি দেখতে পাব।

প্রথমে এই অংশটি ভালোভাবে বুঝতে হবে। আর এই অংশটি বুঝতে যাওয়ার পূর্বে যদি আমরা পূর্বে পঠিত দুইটি বিষয় মাথায় রাখি, তাহলে এই অংশটি বুঝা আমাদের জন্য সহজ হবে ইনশাআল্লাহ্‌। যেই বিষয় দুইটি মাথায় রাখতে হবে, তার একটি হচ্ছে ইসমুল ইশারা-মুশারুন ইলাইহি এবং অপরটি হচ্ছে ইযাফাত।

এই কিতাবের শুরুর দিকে ইসমুল ইশারার পরিচয় ও ব্যবহার সম্পর্কে জেনেছিলাম।

পড়েছিলাম,

যে শব্দের দ্বারা কোন বা বস্তুর দিকে ইশারা করা হয়, তাকে ইসমুল ইশারা বলে।

এবং এখন পর্যন্ত আমরা চারটি ইসমুল ইশারা পড়েছি। সেগুলো হচ্ছে هذا-هذه (ইহা) এবং ذلك-تلك (উহা)।

আর মুশারুন ইলাইহির সংজ্ঞা পড়েছিলাম যে,

যে শব্দের দিকে ইশারা করা হয়, তাকে মুশারুন ইলাইহি বলে।

যেমন, هذا الكتاب এখানে هذا হচ্ছে ইসমুল ইশারা এবং الكتاب হচ্ছে মুশারুন ইলাইহি। এমনিভাবে ذلك القلم এখানে ذلك হচ্ছে ইসমুল ইশারা এবং القلم হচ্ছে মুশারুন ইলাইহি।

মনে আছে তো সব?

অপরদিকে ইযাফাত সম্পর্কে আমরা জেনেছি প্রথম অধ্যায়ের পঞ্চম ও ষষ্ঠ পাঠে।

ইযাফাত সম্পর্কে এখন পর্যন্ত যে বিষয়গুলো আমরা পড়েছি, তা হলঃ

১.আরবী ব্যাকরণে একটি শব্দকে অপর আরেকটি শব্দের দিকে সম্বন্ধযুক্ত করাকে اضافة বলে।

২. اضافة এর সময় (তথা দুইটি শব্দকে যুক্তকরণের সময়) যে শব্দকে সম্বন্ধযুক্ত করা হয় তাকে مضاف বলে।

৩. اضافة এর সময় যে শব্দের দিকে/সাথে সম্বন্ধযুক্ত করা হয় তাকে مضاف اليه বলে।

৪. বাংলা ভাষায় মুযাফ এবং মুযাফ ইলাইহি চেনার সহজ উপায় হচ্ছেঃ যে শব্দের শেষে ‘এর/র’ যুক্ত থাকে তা হচ্ছে مضاف اليه এবং ‘এর/র-যুক্ত’ শব্দের পরবর্তী শব্দ হচ্ছে مضاف। যেমন, ‘রাশেদের বই’ এর ক্ষেত্রে ‘রাশেদ’ শব্দের শেষে ‘র’ থাকায় তা হচ্ছে مضاف اليه এবং পরবর্তী ‘বই’ শব্দটি হচ্ছে مضاف।

৫. مضاف শব্দের শেষ হরফে শুধুমাত্র এক যবর, এক যের বা এক পেশ হয়। مضاف শব্দের শেষ হরফে কখনো তানবীন হয় না।

৬. مضاف اليه যদি দ্বমীর ছাড়া অন্য কোন শব্দ হয়, তাহলে সেই শব্দের শেষ হরফে যের হয়। যেমন, قَلَمُ زَيْدٍ এবং طَاوِلَةُ الْمُعَلِّمِ। তবে কোন ক্ষেত্রে মেয়েদের নাম মুদ্বফ ইলাইহি হলে মেয়েদের নামের শেষ হরফে এক যবর দিয়ে পড়া হবে। যেমন, قَلَمُ عَائِشَةَ ، سَاعََةُ فَاطِمَةَ.

উপরে উল্লেখিত সবগুলো বিষয় আমরা পূর্বে পড়েছি।

এবার একটু যাচাই করে নেই যে, উপরের বিষয়গুলো আমাদের মনে আছে কি না?

#1. ذلك শব্দটি...

#2. ফাতেমার বই। বই শব্দটি এখানে...

#3. মুযাফ ইলাইহি যদি ...... না হয়, তাহলে শব্দের শেষ হরফে যের হয়।

finish

Results

আলহামদুলিল্লাহ

সবগুলো বিষয় আমাদের মনে আছে। এবার তাহলে সামনে এগিয়ে যাই।
প্রথম খণ্ড, তৃতীয় অধ্যায়, প্রথম পাঠ

নাহ, হলো না।

আগের একটা পড়াও যদি ভুলে যাই, সামনের পড়া বুঝব কীভাবে?

আরেকবার পড়ে নেই আগের পড়াগুলো।

সামনের পড়া তো বুঝতে হবে, তাই না?

প্রথম খণ্ড, তৃতীয় অধ্যায়, প্রথম পাঠ

এখন লক্ষ্য করি, এতদিন আমরা মুযাফ-মুযাফ ইলাইহির যে ব্যবহার দেখেছি, তাতে মুযাফ ইলাইহির শুরুতে ইসমুল ইশারার ব্যবহার দেখিনি। অর্থাৎ, ‘এই মসজিদের ইমাম’ বা ‘ঐ ঘরের দরজা’ এই জাতীয় মুযাফ-মুযাফ ইলাইহি দেখিনি, যেখানে ইসমুল ইশারা-মুশারুন ইলাইহি মিলে মুযাফ ইলাইহি হয়েছে।

এই পাঠে আমরা এই বিষয়টিই শিখব।


আর এই বিষয়টা একেবারেই সহজ।
কী শিখব?

মুযাফ ইলাইহির শুরুতে ইসমুল ইশারার ব্যবহার।

তাহলে কী করতে হবে?

মুযাফ ইলাইহির শুরুতে ইসমুল ইশারা বসিয়ে দিতে হবে।

আমরা জানি, আরবী ভাষায় মুযাফ ইলাইহি বসে মুযাফের পরে। এখন মুযাফের পরে এবং মুযাফ ইলাইহির পূর্বে ইসমুল ইশারা বসিয়ে দিলেই হয়ে গেল।

مضاف + اسم الاشارة + مضاف اليه

باب + هذا + البيت

একেবারে সহজ। শুধু পূর্বে পঠিত দুইটি বিষয় মাথায় রেখে পড়লেই হবে।

১. মুযাফের শেষ হরফে তানবীন হয় না এবং মুযাফ ইলাইহিরর শেষ হরফে যের হয়।

২. আর هذا، هذه، ذلك، تلك এই ইসমুল ইশারাগুলোর হরফের হরকতে কখনো কোন পরিবর্তন হয় না।

(এই লেখার পরবর্তী অংশটুকু পড়তে নিচে থাকা 2 লেখা বাটনটিতে ক্লিক করুন।)

প্রথম খণ্ড, তৃতীয় অধ্যায়, প্রথম পাঠ

6 thoughts on “প্রথম খণ্ড, তৃতীয় অধ্যায়, প্রথম পাঠ

  • September 4, 2020 at 1:51 pm
    Permalink

    জি ভাইয়া এভাবে দিলে হবে তবে যে রুলসগুলো দিয়েছেন রুলস এর সাথে ইংরেজি রুলসের যে পরিভাষাগুলো মিল খায় সেগুলো লিখলে বুঝতে সহজ হবে বলে মনে হয়েছে

    Reply
    • September 4, 2020 at 2:19 pm
      Permalink

      এই বিষয়টা মাথায় রাখব ইনশাআল্লাহ্‌।

      Reply
  • September 4, 2020 at 2:22 pm
    Permalink

    মাশাআল্লাহ আপনার এই উদ্যোগটি সহজ এবং বোধগম্য হয়েছে আলহামদুলিল্লাহ।

    Reply
    • September 4, 2020 at 2:26 pm
      Permalink

      আলহামদুলিল্লাহ্‌।
      শুকরিয়া ভাই।

      Reply
  • June 15, 2021 at 9:16 am
    Permalink

    জাঝাকাল্লাহু খইর

    Reply
  • June 29, 2021 at 4:03 am
    Permalink

    পড়ানোর পদ্ধতি খুবই উপকারী, মাশাআল্লাহ।
    এত দেরীতে এই সাইটের খোঁজ পাওয়ায় বেশ কিছুটা আফসোস ই লাগছে।

    ছোট্ট একটি অনুরোধ,
    শুরু থেকে বেশ অনেকগুলো নোট এর ই পিডিএফ ফাইল পেলাম না। ভেবেছি লেখাগুলো কপি করে পিডিএফ ফাইল করে প্রিন্ট করে নিব। কিন্তু লেখা সাইট থেকে কপি করা যাচ্ছেনা।
    অনুগ্রহ করে সবগুলো নোট এবং কম্পেয়ার ফাইলের পিডিএফ কপি আপলোড করে দেয়া হলে খুবই ভাল হত।

    আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা এত সুন্দর পাঠ তৈরীর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে উত্তম প্রতিদান দান করুন। আমীন।

    Reply

Leave a Reply to Jubaer Ahmed Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *